ক্লাব ইনসাইড

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি: শাহবাগে অবরোধ ও মশাল মিছিল

প্রকাশ: ০৯:১৮ পিএম, ০৬ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি: শাহবাগে অবরোধ ও মশাল মিছিল

জ্বালানি তেলের রেকর্ড পরিমাণ মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিল ও মশাল মিছিল করে প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন। 

শনিবার (৬ আগস্ট) বিকালে সাড়ে ৬টার দিকে ‘নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে’ন ব্যানারে রাজধানীর শাহবাগ মোড় আটকিয়ে প্রতিবাদ জানায় জানায় শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও জাতীয় যাদুঘরের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও পরবর্তীতে মোটরবাইক নিয়ে মশাল মিছিল করে ছাত্র ফেডারেশন। একই সময়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করে প্রগতিশীল ছাত্রজোট। 

এর আগে, বিকাল ৫টার দিকে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি ও বিদ্যুৎ খাতে ‘লুটপাট’ ও লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ শুরু করে ছাত্র ফেডারেশন। সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি মশিউর রহমান খান রিচার্ডের সভাপতিত্বে গণসংহতি আন্দোলনের রাজনৈতিক পরিষদ ও বাংলাদেশ কৃষক মজুর সমিতির সদস্য দেওয়ান আব্দুর রশিদ নিলু, ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈকত আরিফসহ ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ শাখার নেতৃবৃন্দ বক্তব্য দেন।

পরে মোটরবাইক সহযোগে একটি মশাল মিছিল করে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। মিছিলটি কাঁটাবন হয়ে হাতিরপুলে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে জ্বালানি তেলের মূল্য কমানোর দাবি জানিয়ে স্লোগান দেওয়া হয়।

এদিকে, শুক্রবার রাতে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে তাৎক্ষণিকভাবে প্রতিবাদ জানায় ছাত্র অধিকার পরিষদ। সংগঠনটির নেতাকর্মীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মশাল মিছিল করে। এতে ছাত্রলীগের বাধার অভিযোগ পাওয়া গেলে তেমন কোনো সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি।


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

ইউল্যাবে স্কুলছাত্রদের জন্য মোবাইল চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা শুরু

প্রকাশ: ০১:৪৬ পিএম, ১৩ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ইউল্যাবে স্কুলছাত্রদের জন্য মোবাইল চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা শুরু

গত শুক্রবার (১২ আগস্ট) রাজধানীর বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশে (ইউল্যাব) ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসব- ডিআইএমএফএফ ২০২৩ আয়োজিত ডিআইওয়াই: মোবাইল ফিল্মমেকিং শীর্ষক চার দিনব্যাপী কর্মশালা শুরু হয়েছে।

আয়োজিত কর্মশালার মধ্য দিয়ে তরুণদের ভিজ্যুয়াল কন্টেন্ট তৈরির মৌলিক বিষয়গুলির সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি মোবাইল চলচ্চিত্র নির্মাণের সাথে উদ্ভূত সম্ভাবনা এবং সুযোগগুলো তুলে ধরা হবে।

এই কর্মশালাটি মোবাইল চলচ্চিত্র নির্মাণে এবং এটি সঠিক প্ল্যাটফর্মে উপস্থাপনের ব্যাপারে শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের কয়েকটি গ্রুপে ভাগ করা হয় এবং তাদেরকে এক মিনিটের একটি চলচ্চিত্র তৈরি করতে বলা হয় যেটি তারা ডিআইএমএফএফ ২০২৩ প্রতিযোগিতায় জমা দিবে। আশা করা হচ্ছে কর্মশালাটিতে যারা অংশগ্রহণ করেছে তারা আন্তর্জাতিক বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসবে তাঁদের বানানো চলচ্চিত্র জমা দেওয়ার দক্ষতা অর্জন করবে।

ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসব- ডিআইএমএফএফ ২০২৩ নবম বারের মত অনুষ্ঠীত হতে যাচ্ছে। ডিআইএএমএফএফ তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতাদের জন্য তাদের সৃজনশীলতা তুলে ধরার একটি প্ল্যাটফর্ম।

বাদশাহ ফয়সল ইনস্টিটিউটের ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ১০ জন স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা এই কর্মশালায় অংশ নিচ্ছে। ডিআইএমএফএফ - এর সোশ্যাল অ্যাফেয়ার্স ম্যানেজার, মোঃ রায়হান কবির শুভ্র, এই কর্মশালার আয়োজন করেন, প্রশিক্ষণ দেন, ডিআইএমএফএফ - এর প্রশিক্ষক, জাহিদ গগন।

আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই উৎসবে চলচ্চিত্র জমা দেওয়া যাবে। নির্বাচিত চলচ্চিত্রগুলো উৎসবের উদ্বোধনী ও সমাপনী অধিবেশনে প্রদর্শিত হবে। ২০২৩ সালের ৩ ও ৪ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে নবম ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসবের (ডিআইএমএফএফ) নবম আসর।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে 'নতুন প্রজন্ম, নতুন প্রযুক্তি ও নতুন যোগাযোগ' এই প্রতিপাদ্য নিয়ে ঢাকা আন্তর্জাতিক মোবাইল চলচ্চিত্র উৎসবের যাত্রা শুরু হয়। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে চলচ্চিত্র নির্মাণে উৎসাহিত করার জন্যই এই আয়োজন।

ইউল্যাব   স্কুলছাত্র   মোবাইল চলচ্চিত্র   নির্মাণ কর্মশালা   শুরু  


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

দোকানির টাকা কেড়ে নিলেন রাবি ছাত্রলীগের ৩ নেতা!

প্রকাশ: ০৭:২৩ পিএম, ১২ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail দোকানির টাকা কেড়ে নিলেন রাবি ছাত্রলীগের ৩ নেতা!

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে চাঁদা না পাওয়ায় এক দোকানের ক্যাশবাক্স থেকে ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ আগসট) বেলা দুইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ হবিবুর রহমান হলের সামনের এক দোকানে এই ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের দাবি, ওই দোকানদারকে দোকানের ভেতর এক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় পেয়েছেন তাঁরা। এ সময় তাঁদের সঙ্গে ওই দোকানদারের বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। পরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে তাঁদের মধ্যে কয়েকজন দোকানের ঝাঁপ নামিয়ে দেন। এর বেশি কিছু ঘটেনি।

দোকানদার সেলিম হোসেন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, এক নারী ক্রেতা তাঁর দোকানে মুঠোফোনে রিচার্জ করতে আসেন। দোকানের দরজা খোলা থাকায় তিনি ভেতরে প্রবেশ করেন। এ সময় দরজার শাটার নামিয়ে দিয়ে ছাত্রলীগের কিছু নেতা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা দিতে রাজি না হলে শহীদ জিয়াউর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ খান ক্যাশবাক্স থেকে ৫০ হাজার টাকা তুলে নেন। রাশেদের সঙ্গে শহীদ হবিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সামিউল আলম ওরফে সোহাগ এবং আইবিএ হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সিনহাও ছিলেন বলে তিনি জানান।

অভিযোগের বিষয়ে শহীদ হবিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সামিউল ইসলাম বলেন, দুপুরে হলের সামনে ওই দোকানে এক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় সেলিম হোসেন ধরা পড়েন। এ সময় অনেকের সঙ্গে তাঁর কথা-কাটাকাটি হয়। পরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এবং রানা নামের একজন দোকানের ঝাঁপ নামিয়ে দেন। সামিউল দাবি করেন, ‘আমি এককভাবে কিছুই করিনি। তাছাড়া দোকানের টাকা নেওয়ার বিষয়েও আমি জানি না।’

শহীদ জিয়াউর রহমান হলের সভাপতি রাশেদ খান বলেন, ‘আমি দুপুরে খাওয়ার জন্য হলের নিচে আসি। আসার পর দেখি ওই দোকানের সামনে হট্টগোল চলছে। দোকানের ভেতর মেয়ে থাকা নিয়ে সিনহা ও সোহাগ মিলে দোকানিকে আটকে রেখেছেন। আমি সেখানে যাওয়ার এক মিনিটের মধ্যে সহকারী প্রক্টর এসে তাঁদের নিয়ে যান। আমি কোনো টাকা নিইনি।’

আইবিএ হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সিনহা বলেন, ‘আমি চারুকলা থেকে খাওয়াদাওয়া করে আসছিলাম। এসে দেখি ওখানে দোকানদারকে নারীসহ আটকে রাখা হয়েছে। পরে প্রক্টর এসে তাঁদেরকে নিয়ে যান। টাকা নেওয়ার ব্যাপারে আমি কিছু জানি না।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আসাবুল হক বলেন, ‘ফোনে অভিযোগ পেয়ে তাঁদের দুজনকে প্রক্টর অফিসে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। দোকানদার সেলিম আমাদের বলেন, এক নারী তাঁর দোকানে রিচার্জ করতে একটু ভেতরে ঢুকেছিলেন। তখন সোহাগ নামের একজন দোকানের শাটার নামিয়ে দিয়ে মানুষ ডাকাডাকি শুরু করেন। তবে দোকানদার কিন্তু আমাদের কাছে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেননি।’


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা শুরু

প্রকাশ: ০৩:৪৪ পিএম, ১২ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা শুরু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাতটি কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের (২০২১-২২) ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। রাজধানীর ১৪টি কেন্দ্রে একযোগে বিকেল সাড়ে তিনটা শুরু হয়েছে। চলবে বিকাল সাড়ে চারটা পর্যন্ত। 

শুক্রবার (১২ আগস্ট) বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোর ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

কেন্দ্রের তালিকা-

ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, সরকারি বাঙলা কলেজ, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভবন-১, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভবন-২, গভর্নমেন্ট কলেজ অব অ্যাপ্লাইড হিউম্যান সায়েন্স (হোম ইকনোমিক্স কলেজ), আজিমপুর গভর্নমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উইল্‌স‌ লিট্‌ল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ ও মতিঝিল গভ. বয়েজ হাই স্কুল।

ঢাবি   অধিভুক্ত   সাত কলেজ   ভর্তি পরীক্ষা  


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

আজ থেকে ঢাবির ‘খ’ ইউনিটে ভর্তির সাক্ষাৎকার শুরু

প্রকাশ: ০৮:০৬ এএম, ১০ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail আজ থেকে ঢাবির ‘খ’ ইউনিটে ভর্তির সাক্ষাৎকার শুরু

আজ (বুধবার) থেকে শুরু হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের সাক্ষাৎকার। সাক্ষাৎকার চলবে ১২ আগস্ট পর্যন্ত। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি সংক্রান্ত ওয়েবসাইটের বিজ্ঞপ্তি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে খ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিষয় মনোনয়নপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সাক্ষাৎকার ১০ আগস্ট থেকে ১২ আগস্ট পর্যন্ত সূচি অনুযায়ী কলা অনুষদ সভাকক্ষে (কক্ষ নম্বর ১০০১) গ্রহণ করা হবে। সাক্ষাৎকারের সময় কাগজপত্রসহ যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করা হলো।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, বুধবার ১-৭০০ যাদের মেধাক্রম তাদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হবে, বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) ৭০১-১৪০০ যাদের মেধাক্রম তাদের সাক্ষাৎকার। এর পরদিন ১৪০১ থেকে ১৬০০ এবং ১৬০১ থেকে বিষয় মনোনয়নপ্রাপ্ত অবশিষ্ট প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা সোয়া ৬টা পর্যন্ত চার ধাপে সাক্ষাৎকার চলবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগ, সংগীত বিভাগ ও নৃত্যকলা বিভাগে ভর্তির জন্য মেধাক্রম ১ থেকে ৫৬২২ মেধাক্রমপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে আগ্রহী প্রার্থীদের মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষা ২১ আগস্ট থেকে ২৫ আগস্ট পর্যন্ত গ্রহণ করা হবে।

শিক্ষার্থীদের যেসব কাগজপত্র সঙ্গে আনতে হবে

>> ভর্তি পরীক্ষার মূল প্রবেশপত্র
>> এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মূল গ্রেডশিট
>> ইন্টারনেটের মাধ্যমে ডাউনলোডকৃত ভর্তির প্রাথমিক আবেদনের বিস্তারিত ফরম এবং বিষয়সমূহের পছন্দক্রম ফরম। উভয় ফরমে শিক্ষার্থী তারিখ ও মোবাইল নম্বর প্রদান করে স্বাক্ষর করবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, সাক্ষাৎকারের সময় প্রার্থীদের মূল গ্রেডশিটসমূহ জমা রাখা হবে। মূল গ্রেডশিটসমূহ জমা দেওয়ার পূর্বে প্রার্থীদের পরবর্তীতে ভর্তির জন্য প্রত্যেকটি গ্রেডশিটের অন্তত ১০টি করে ফটোকপি নিজের কাছে রাখতে হবে। কোনো কারণে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আনতে ব্যর্থ হলে নির্ধারিত পরিমাণ জরিমানা প্রদান সাপেক্ষে সাক্ষাৎকারে অংশগ্রহণের অনুমতি দেওয়া যেতে পারে।

ঢাবি   ভর্তি   সাক্ষাৎকার  


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

ঢাবির ছাত্রদের মারধরের স্বীকার হলেন ঢাকা মেডিকেলের ইন্টার্ন

প্রকাশ: ০৩:৫০ পিএম, ০৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail ঢাবির ছাত্রদের মারধরের স্বীকার হলেন ঢাকা মেডিকেলের ইন্টার্ন

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের এক ইন্টার্ন চিকিৎসককে ব্যাপক মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কয়েকজন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। 

সোমবার (৮ আগস্ট) রাত ৯টার দিকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এই ঘটনা ঘটে বলে জানান ভুক্তভোগী চিকিৎসক এ. কে. এম সাজ্জাদ হোসেন। তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। বর্তমানে এই হাসপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী সাজ্জাদ শহীদ মিনারে বসেছিলেন। এমন সময় ছয় থেকে সাত জনের একটি দল তার কাছে আসে, যাদের গায়ে ঢাবির লোগো সম্বলিত টি-শার্ট ছিল। এ সময় তারা আইডি কার্ড দেখতে চান, কিন্তু তিনি আইডি মেডিকেলে রেখে আসার কথা জানালে তাকে ব্যাপক মারধর শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। কানে থাপ্পর মারায় তার কানের পর্দার আশপাশে রক্তক্ষরণ হয়। এরপর থেকে তিনি ডান পাশের কানে কম শুনতে পাচ্ছেন। এছাড়া মারধরের সময় নাকে আঘাত লাগার কারণেও প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে সাজ্জাদ বলেন, সোমবার রাত ৯টার দিকে আমি শহীদ মিনারে বসেছিলাম, তখন ঢাবির লোগো সম্বলিত টি-শার্ট গায়ে ছয় থেকে সাত জন এসে আমার পরিচয় জানতে চায়। পরিচয় দেওয়ার পরও তারা আমার পরিচয়পত্র দেখতে চায়। আমার কাছে পরিচয়পত্র নেই জানালে তারা আমাকে বলে, ‘পরিচয়পত্র নেই কেন? আমাদের কাছে তো পরিচয়পত্র আছে।’ তখন আমি বললাম, ‘সবাই কী সবসময় পরিচয়পত্র নিয়ে ঘুরে?’ এই কথা বলার পর সঙ্গে সঙ্গে আমাকে একজন থাপ্পড় মেরে বসে। এরপর আরো দুই তিন জন এসে আমাকে চড়-থাপ্পর মারা শুরু করে।

তিনি বলেন, মারধরের একপর্যায়ে আমি চিৎকার করে বলে উঠি, ‘আপনারা চাইলে আমার সঙ্গে ঢাকা মেডিকেলে গিয়ে আমার পরিচয়পত্র দেখে আসতে পারেন।’ তখন তারা আমাকে দ্রুত ওই স্থান থেকে বিদায় করার জন্য তৎপর হয়ে ওঠে। আমি চলে যাওয়ার সময় যে যেভাবে পারছিল, আমাকে মারধর করছিল এবং চলে যেতে জোর করছিল। ঠিক এই সময় কেউ একজন আমার কানের ওপর জোরে থাপ্পর দিলে আমি বসে পড়ি। বসে কেন পড়লাম, এই অপরাধে একজন জুতা পায়ে আমার মুখে লাথি মারে। এ কারণে আমার নাক দিয়ে রক্ত পড়া শুরু হয়। এরপর আমি চলে যেতে চাইলে যাওয়ার পথে যে যেভাবে পেরেছে আমাকে মারধর করেছে রিকশায় ওঠার আগ পর্যন্ত। যারা মারধর করেছে তাদের প্রায় সবার গায়েই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো সম্বলিত টি-শার্ট ছিল।

ভুক্তভোগী সাজ্জাদ বলেন, ঢাকা মেডিকেলের শিক্ষার্থী হওয়া সত্ত্বেও আমার সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটবে তা আমি কল্পনাও করিনি। পরে জানলাম এমন ঘটনা আরো অনেকের সঙ্গে ঘটেছে। আমি এর যথাযথ বিচার চাই। অভিযোগের পাশাপাশি আমি মামলাও করব।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ. কে. এম গোলাম রব্বানী  বলেন, এ সংক্রান্ত এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ এবং তথ্য প্রমাণ পেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এটি গুরুত্বের সঙ্গে দেখবে।



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়   ঢাকা মেডিকেল   মারধর  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন