ক্লাব ইনসাইড

হাবিপ্রবিতে শুদ্ধাচার প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ০১:০২ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২


Thumbnail হাবিপ্রবিতে শুদ্ধাচার প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স সেলের (আইকিউএসি) আয়োজনে “শুদ্ধাচার সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ” কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ডীন ও চেয়ারম্যানগণের অংশগ্রহণে বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯ টায় আইকিউএসি কনফারেন্স রুমে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশলের অংশ হিসেবে উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়। 

উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. কামরুজ্জামান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইকিউএসি'র পরিচালক অধ্যাপক ড. বিকাশ চন্দ্র সরকার এবং সঞ্চালনা করেন আইকিউএসি'র অতিরিক্ত পরিচালক অধ্যাপক ড. মোঃ শাহ্ মইনুর রহমান। কর্মশালায় রিসোর্স পার্সন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসি'র পরিচালক অধ্যাপক ড. কামরুল আলম খান। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. কামরুজ্জামান বলেন, একটি দেশে যদি সুশাসন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা থাকে তবে যেকোন লক্ষ্য বাস্তবায়ন অনেক সহজ হয়। এক্ষেত্রে কিছু কিছু বিষয়ে আমরা এখনও কিছুটা পিছিয়ে আছি, আশা করি সামনে এটি আমরা অতিক্রম করতে পারবো। প্রতিটি ক্ষেত্রে আমরা স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা কিভাবে নিশ্চিত করবো সেটি আজকে আমাদের আলোচনার প্রধান বিষয়বস্তু।

হাবিপ্রবি   শুদ্ধাচার প্রশিক্ষণ কর্মশালা   অনুষ্ঠিত  


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

পাহাড় কথন ও কাং ইয়াৎসে (২) পাহাড়ের গল্প নিয়ে আড্ডা

প্রকাশ: ১২:৩৯ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

ঢাকা ইউনিভার্সিটি ট্যুরিস্ট সোসাইটি ও এডভেঞ্চার প্ল্যাটফর্ম Bengal Trekkers (বেঙ্গল ট্রেকার্স) এর যৌথ উদ্যোগে পর্বতারোহোণ বিষয়ে ‘পাহাড় কথনঃ ট্রেকিং ও কাং ইয়াৎসে (২) পাহাড়ের গল্প’ শিরোনামে এক সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

গতকাল সোমবার (৫ ডিসেম্বর) টিএসসি মুনির চৌধুরী মিলনায়তনে "Trekking for all" প্রতিপাদ্য নিয়ে আয়োজিত হয় এই সেমিনার।

আয়োজনের প্রথম ভাগে পাহাড়ে ট্রেকিং ও পর্বতারোহণ শুরু করার প্রস্তুতির হাতে খড়ির নিয়ে আলোচনা করা হয়।পাশাপাশি কিভাবে কখনো ট্রেকিং না করা কেউ ট্রেকিং শুরু করতে পারে তা নিয়েও আলোচনা করা হয় সবার জন্য উন্মুক্ত এই সভায়।

দ্বিতীয় পর্বে বেঙ্গল ট্রেকার্স টিমের ৬২৫০ মিটার উঁচু কাং ইয়াৎসে (২) পাহাড় অভিযানের অভিজ্ঞতা ও ভবিষ্যতে ছয় হাজার মিটার এর অধিক উচ্চতার পাহাড় অভিযানের গ্রাউন্ড ওয়ার্ক ও পরিকল্পনা বিষয়ক আলোচনা করেন বক্তারা।


অনুষ্ঠানে বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন Bengal Trekkers (বেঙ্গল ট্রেকার্স) এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ আরাফাত হোসেন, সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান কার্যনির্বাহী শূণ্য সাগর এবং পর্বতারোহী ও ট্রেক লিডার আসাদুজ্জামান সাজ্জাদ।

বেঙ্গল ট্রেকার্স এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ আরাফাত হোসে বলেন, ‘আমাদের এই আয়োজনের মূল লক্ষ্য মানুষের মাঝে ভ্রমণ, পর্বতারোহণ নিয়ে মানুষকে উৎসাহী করে তোলা এবং দেশে ই-ট্যুরিজমের প্রসার করা। তাছাড়া, আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে তাদের জন্য পূর্ব প্রস্তুতি কিংবা প্রশিক্ষণ নিয়ে ধারণা দেইয়ার পাশাপাশি পাহাড় ভ্রমণের ক্ষেত্রে সুস্পষ্ট নির্দেশনা বা প্রয়োজনীয় তথ্য জানানোর চেষ্টা করেছি আমরা।।‘

Bengel Trekkers সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান কার্যনির্বাহী শূণ্য সাগর বলেন, ‘ট্রেকিংকে সবার কাছে পরিচিত করার জন্য ও আগ্রহ বাড়ানোর জন্যই আমাদের এই আয়োজন ছিল। কারণ আমার মতে বেসিক ও বিগিনার্স ট্রেকিং নিয়ে খোলাখুলি কথা বলার জায়গা বা প্লাটফর্ম নেই।  ফলে অনেকে জানে না কি ভাবে ট্রেকিং শুরু করবে। অনেকে দিকনির্দেশনার অভাবে ট্রেকিং প্রস্তুতি ভুল নিচ্ছে। আমরা সেই ঘাটতির জায়গা পূরণ করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছি। তাছাড়া আগামীতেও আমদের ট্রেকিং ও প্রশিক্ষণ নিয়ে কাজ করার পরিকল্পনাও রয়েছে আমাদের।‘’

এছাড়া বেঙ্গল ট্রেকার্স টিমের অন্যান্য সদস্যদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ইউনিভার্সিটি ট্যুরিস্ট সোসাইটি এর সহ-সভাপতি আলী রওনক ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক নাহিন আশরাফুল ও এক্সিকিউটিভ মেম্বার সাঈদ হাসান। সেমিনার শেষে উপস্থিত সবার মাঝে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।



মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

ইবিতে অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা বিষয়ে কর্মশালা


Thumbnail

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) "অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা এবং জিআরএস সফ্টওয়ার" বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্ম-পরিকল্পনা ২০২২-২০২৩ এর অংশ হিসেবে সোমবার (০৫ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় প্রশাসন ভবনের ৩য় তলার সভাকক্ষে  এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, সকল ক্ষেত্রে যদি স্বচ্ছ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠিত করতে পারি তাহলে গুজব থেকে সুরক্ষা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, নাগরিকদের সঠিক সময়ে সঠিকভাবে সেবা পাওয়ার অধিকার রয়েছে। অভিযোগ প্রতিকারের ব্যবস্থাপনায় আমরা আরও জবাবদিহিতার আওতায় আসবো, আরো বেশি দায়িত্বশীল হতে বাধ্য হব, সেবাদান ও সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা তৈরি হবে। তিনি আরও বলেন, নির্ভেজাল শুদ্ধাচার চাইলে আমার যা করণীয় তা আমাকে করতে হবে। তাহলেই আমরা শুদ্ধ সমাজ এবং শুদ্ধ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত করতে পারবো। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপযোগী করে অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থা সংক্রান্ত নির্দেশিকা এবং কাস্টমাইজড সফটওয়্যার তৈরির প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি।

কর্মশালার সভাপতি এপিএ টিমের আহ্বায়ক প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশের প্ল্যাটফর্মে আছি। বর্তমান প্রেক্ষাপটের সাথে খাপ খাইয়ে নেয়ার জন্য আমাদের সবাইকে কম্পিউটার বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। তিনি জানান, আমরা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অফিস ও বিভাগসমূহকে অটোমেশনের আওতায় আনার চেষ্টা করছি।

বিশেষ অতিথি ট্রেজারার প্রফেসর ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, আমি কর্মশালার সার্বিক সাফল্য কামনা করছি এবং আমরা আমাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করব, এই আশা ব্যক্ত করছি।

কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এইচ. এম. আলী হাসান। এছাড়াও অভিযোগ নিষ্পত্তিকারী কর্মকর্তা প্রক্টর প্রফেসর ড. মোহাঃ জাহাঙ্গীর হোসেন বক্তব্য রাখেন। কর্মশালায় রিসোর্স পার্সন ছিলেন আইসিটি সেল-এর পরিচালক প্রফেসর ড. আহসান-উল-আম্বিয়া। বিশ্ববিদ্যালয়ের হল প্রভোস্ট, অফিস প্রধান এবং এপিএ সংশ্লিষ্ট ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তাবৃন্দ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন

কর্মশালা  


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ০৪:৫৩ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের জন্য দিনব্যাপী এক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘প্রিপারেশন অ্যান্ড প্রসেস অব পাবলিশিং রিসার্চ আর্টিকেলস্ ইন ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল’ শিরোনামে কর্মশালাটি সকাল ৯.৪৫ মিনিটে উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন। কর্মশালায় রিসোর্স পারসন ছিলেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহজাহান খান। 

সোমবার ৫ ডিসেম্বর, ২০২২ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি)-এর পরিচালক অধ্যাপক ড. মীর খালেদ ইকবাল চৌধুরী। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন আইকিউএসি’র অতিরিক্ত পরিচালক ড. শেখ রাসেল আল-আহম্মেদ এবং ড. মো. নূর আলম। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন বলেন, কোনো বিষয় সম্পর্কে ভালো ধারণা নিতে হলে, বেশি বেশি চর্চা করতে হবে। চর্চার মাধ্যমে অন্তর্নিহিত বিষয়গুলো সামনে চলে আসবে। জ্ঞান-বিজ্ঞান কখনো শেষ হয়না। এটি চলমান প্রক্রিয়া এবং চলতে থাকে। গুণগত শিক্ষাকে আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। তিনি বলেন, সম্পদের সীমাবদ্ধতার মধ্যেও আমাদের শিক্ষকরা আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে গবেষণায় ভালো করছেন। স্বল্প সম্পদকে সর্বোচ্চ ব্যবহার করে আমাদের গবেষণায় এগিয়ে যেতে হবে। ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাস্যুরেন্স সেল-এর উদ্যোগে দুটি ব্যাচে ১৪৩ জন শিক্ষক প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। 

প্রথম ব্যাচে সকাল ৯.৪৫ মিনিট হতে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৭৫জন অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক ও প্রভাষক এবং দ্বিতীয় ব্যাচে দুপুর দুইটা হতে বিকাল চারটা পর্যন্ত ৬৮জন সহকারী অধ্যাপক কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান ভবনের গ্যালারী ২ এ অনুষ্ঠিত হয়। সঞ্চালনা করেন আইকিউএসি’র প্রশাসনিক কর্মকর্তা সানজিদা শারমিন।

কর্মশালা  


মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

চবিতে অস্ত্র হাতে ছাত্রলীগ কর্মীদের মহড়ার ভিডিও ভাইরাল

প্রকাশ: ০৮:৩৪ এএম, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

শুক্রবার দিবাগত রাত একটার দিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই উপপক্ষের সংঘর্ষের সময় সংগঠনটির নেতা-কর্মীদের দেশীয় অস্ত্র নিয়ে স্লোগান ও মহড়া দেওয়ার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ সময় তাদের ‘বিজয়’ বলে স্লোগান দিতে দেখা যায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের এ এফ রহমান হলের সামনে থেকে ভিডিওটি ধারণ করা হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় ১ মিনিট ২৩ সেকেন্ডের ভিডিওটি ভাইরাল হয়। ভিডিওটিতে দেখা যায়, শাখা ছাত্রলীগের বিজয় উপপক্ষের নেতা-কর্মীরা দা উঁচিয়ে বলছেন, ‘এই হল আমাদের, সবাই স্লোগান ধর।’ এরপর তাঁরা ‘বিজয়’ বলে স্লোগান দেন।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে এ এফ রহমান হলে ভার্সিটি এক্সপ্রেসের দেয়াললিখন মুছে দেন বিজয়ের নেতা-কর্মীরা। এ ঘটনার সূত্র ধরে দুই উপপক্ষের নেতা-কর্মীদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হয় এবং একপর্যায়ে রাত নয়টার দিকে বিজয়ের নেতা-কর্মীরা লাঠিসোঁটা ও রামদা নিয়ে এ এফ রহমান হলের সামনে এবং ভার্সিটি এক্সপ্রেসের নেতা-কর্মীরা সোহরাওয়ার্দী হলের সামনে অবস্থান নেন।

দুই উপপক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকবার ধাওয়া পাল্টাধাওয়া এবং ইটপাটকেল নিক্ষেপ চলে। পরে দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে প্রক্টরিয়াল বডি ও পুলিশের সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

সংঘর্ষের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দুই উপপক্ষের ১২ নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। তাঁদের মধ্যে ২ জন ভার্সিটি এক্সপ্রেস ও ১০ জন বিজয় উপপক্ষের। এর মধ্যে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আটজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাঁদের অনেকের গায়ে ধারালো কিছু দিয়ে আঘাত করার দাগ ছিল।



মন্তব্য করুন


ক্লাব ইনসাইড

ইবিতে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল ও ভলিবল প্রতিযোগিতা শুরু


Thumbnail

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল ও ভলিবল প্রতিযোগিতা-২০২২ শুরু হয়েছে। শনিবার (৩ ডিসেম্বর) বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুটবল মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে খেলার উদ্বোধন করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আব্দুস সালাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া।

পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ এবং পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম, বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের পতাকা উত্তোলন করেন ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি স্পোর্টস ফেডারেশন (ফিসু)-এর পতাকা উত্তোলন করেন রেজিস্টার (ভারপ্রাপ্ত) এইচ.এম. আলী হাসান এবং অলিম্পিক পতাকা উত্তোলন করেন শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক ড. মোহাম্মদ সোহেল। এছাড়াও নিজ-নিজ দলের পতাকা উত্তোলন করেন দলীয় ম্যানেজার ও প্রশিক্ষকবৃন্দ।

এরপর শুরু হয় মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা। আরতুস ও অন্তরার দল ডিসপ্লে, বাংলাদেশ লাঠিয়াল বাহিনীর দল লাঠি খেলা এবং ডলী ও রিতা মন্ডল লালন সংগীত পরিবেশন করে উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করেন। সঞ্চালনায় ছিলেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শিরিনা খাতুন বীথি এবং শারীরিক শিক্ষা বিভাগের সহকারী পরিচালক মাবিলা রহমান। শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক ড. মোহাম্মদ সোহেল অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। বক্তব্য প্রদান শেষে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল ও ভলিবল প্রতিযোগিতা ২০২২-এর উদ্বোধন করেন ভিসি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল বিশ্ববিদ্যালয় দলকে সুস্বাগত জানান। তিনি বলেন, আমরা যদি এই প্রতিযোগিতায় শৃঙ্খলা বজায় রাখতে পারি তাহলে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম হবে।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, খেলা মানে শৃঙ্খলা; জয়কে যেমন, তেমনি পরাজয়কে মেনে নেয়া।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি প্রফেসর ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, আমি খুশি, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আশা করছি, আগামী দিনে আরো বেশি সংখ্যক বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। ভাইস চ্যান্সেলর বলেন, ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শনের সময় শৃঙ্খলার শিক্ষা ভালোভাবে প্রদর্শন করতে পারেন খেলোয়াড়রা। তিনি আরও বলেন, খেলায় হার-জিত থাকবেই। কিন্তু সম্পর্কের মাধুর্য যেন হারা জেতার মধ্যেও বজায় থাকে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রথম খেলায় হ্যান্ডবল (ছাত্র)-এ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ২৪-১৪ গোলে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে পরাজিত করেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও স্বাগতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭টি পুরুষ দল ও ৬টি নারীদল প্রতিযোগিতার হ্যান্ডবল ক্যাটাগরিতে অংশ নিচ্ছে। আগামী ১৮ ডিসেম্বর থেকে ভলিবল প্রতিযোগিতা শুরু হবে বলে জানা গেছে।

আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় প্রতিযোগিতা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন