ইনসাইড গ্রাউন্ড

ফিফা দ্য বেস্ট: কে জিতলেন কোন পুরস্কার

প্রকাশ: ০৩:১৯ এএম, ১৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail ফিফা দ্য বেস্ট: কে জিতলেন কোন পুরস্কার

ফিফা দ্য বেস্ট পুরস্কার দেওয়ার অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে বাংলাদেশ সময় সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১২ টায়।

ছেলেদের সেরা গোলকিপার হয়েছেন মেন্দি

চেলসির সেনেগালিজ গোলকিপার এদুয়ার্দ মেন্দির হাতে উঠেছে সেরা গোলকিপারের পুরষ্কার। গত মৌসুমে চেলসিকে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানোর পেছনে বড় ভূমিকা ছিল এই গোলকিপারের। চ্যাম্পিয়নস লিগে ১৭ ম্যাচের মধ্যে ১৩ ম্যাচেই কোনো গোল খাননি মেন্দি। মেন্দির পুরস্কার ঘোষণা করেছেন কিংবদন্তি গোলকিপার পিটার স্মাইকেল। বায়ার্ন মিউনিখের গোলকিপার ম্যানুয়েল নয়্যার আর পিএসজির ইউরোজয়ী গোলকিপার জিয়ানলুইজি দোন্নারুম্মাকে হারিয়ে এ পুরস্কার জিতেছেন তিনি।

পুসকাস অ্যাওয়ার্ড জিতলেন আর্জেন্টাইন তারকা লামেলা

বছরের সবচেয়ে দৃষ্টিনন্দন গোল ‘পুসকাস অ্যাওয়ার্ড’ জিতলেন সেভিয়ার আর্জেন্টাইন উইঙ্গার এরিক লামেলা। তবে যে গোলের জন্য জিতেছেন, তখন ইংলিশ ক্লাব টটেনহামে খেলতেন এই উইঙ্গার। আর্সেনালের বিপক্ষে র‍্যাবোনা শতে অসাধারণ গোল করেছিলেন, সেটাই এনে দিল পুসকাস। পুরস্কার দেওয়ার জন্য মঞ্চে ডাকা হয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি ও বার্সেলোনার সাবেক আইভরিয়ান মিডফিল্ডার ইয়ায়া তুরে কে। 

ফিফা ফেয়ার প্লে পুরস্কার জিতল ডেনমার্ক

দৃশ্যটা হয়তো কোনো দিনই কেউ ভুলতে পারবে না। গত জুনে ইউরোয় ডেনমার্ক-ফিনল্যান্ড ম্যাচ। হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মাঠেই মুখ থুবড়ে পড়ে যান ডেনিশ প্লেমেকার ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন। ফুটবল দুনিয়ার জন্য সেই মুহূর্ত ছিল অভাবনীয় উৎকণ্ঠার। ডেনমার্ক অধিনায়ক সিমোন কায়ের এবং অন্যরা তৎক্ষণাৎ ছুটে গিয়ে এরিকসেনকে প্রাথমিক চিকিৎসা না দিলে কী হতো কে জানে!

মাঠের বাইরে থেকে চিকিৎসাদল দ্রুত গিয়ে এরিকসেনকে সিপিআর (বুকে চাপ দিয়ে কৃত্রিমভাবে শ্বাসপ্রশ্বাস চালু রাখা) দেয়। এই তৎপর চিকিৎসাসেবার কারণে সে যাত্রায় প্রাণে বেঁচে যান এরিকসেন। ডেনিশ তারকার প্রাণ বাঁচাতে সেদিন যাঁরা খুব দ্রুত সাড়া দিয়েছিলেন, তাঁদের পুরস্কৃত করল ফিফা। ফেয়ার প্লে অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার মাধ্যমে।

নারী দলের সেরা কোচ হলেন এমা হেয়েস

২০২১ সালের নারী দলগুলোর সেরা কোচ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন চেলসির নারী দলের কোচ এমা হেয়েস। বার্সেলোনার নারী কোচ লুইস কোর্তেস আর নেদারল্যান্ডস নারী জাতীয় দলের সাবেক কোচ, ইংল্যান্ড নারী জাতীয় দলের বর্তমান কোচ সারা উইগম্যানকে হারিয়ে এ পুরস্কার জিতেছেন তিনি।  

ছেলেদের দলের সেরা কোচ হলেন টুখেল

চেলসিকে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানোর পুরস্কার পেলেন জার্মান কোচ টমাস টুখেল। ম্যানচেস্টার সিটির পেপ গার্দিওলা আর ইতালি জাতীয় দলের কোচ রবার্তো মানচিনিকে হারিয়ে ছেলেদের দলের সেরা কোচের পুরস্কার উঠেছে টুখেলের হাতে। পুরস্কার ঘোষণা করার জন্য উপস্থিত ছিলেন আর্সেনালের সাবেক কিংবদন্তি কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার।

ফিফা ফ্যান অ্যাওয়ার্ড পেল ডেনমার্ক আর ফিনল্যান্ডের সমর্থকেরা

জীবনের মূল্য যে ফুটবলের চেয়েও বেশি, সেটা ওদিন বুঝিয়েছিল ডেনমার্ক আর ফিনল্যান্ডের দর্শকেরা। দেখতে এসেছিলেন ইউরোর খেলা, হুট করে সবাইকে আতঙ্কে ভাসিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ডেনিশ মিডফিল্ডার ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন। এরিকসেনের জীবন সংশয়ে থাকার সেই মূহুর্তগুলোতে অনন্যসাধারণ এক উদাহরণ সৃষ্টি করে মাঠে আসা দুই দলের সমর্থক। ইন্টার মিলানের সাবেক এই মিডফিল্ডারের নাম ধরে 'এরিকসেন', 'এরিকসেন' ধ্বনিতে মুখরিত করে তোলেন পুরো স্টেডিয়াম। সেটার পুরস্কারই আজ ফিফা দিল এই দুই দলের সমর্থককে, ফিফা ফ্যান অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার মাধ্যমে।

মেয়েদের ফিফা ফিফপ্রো সেরা একাদশ ঘোষণা

গোলকিপার - এন্ডলার
রক্ষণভাগ - ব্রোঞ্জ, ব্রাইট, রেনার্ড, এরিকসন
মাঝমাঠ - বানিনি, লয়েড, বোনাসেরা
আক্রমণভাগ - মার্তা, মরগান, মিয়েডেমা

চমকপ্রদভাবে এবারের ফিফা বেস্ট পুরস্কারের লড়াইতে থাকা শীর্ষ তিন নারী তারকা জেনিফার এর্মোসো, স্যাম কের ও অ্যালেক্সিয়া পুতেয়াসের কেউই নেই একাদশে।

ছেলেদের ফিফা ফিফপ্রো সেরা একাদশ ঘোষণা

গোলকিপার - জিয়ানলুইজি দোন্নারুম্মা
রক্ষণভাগ - ডেভিড আলাবা, রুবেন দিয়াস, লিওনার্দো বোনুচ্চি
মাঝমাঠ - জর্জিনিও, এনগোলো কান্তে, কেভিন ডি ব্রুইনা
আক্রমণভাগ - লিওনেল মেসি, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, আর্লিং হরলান্ড, রবার্ট লেভান্ডভস্কি

এবারের ফিফা বেস্ট পুরস্কারের লড়াইতে থাকা লিভারপুলের মোহাম্মদ সালাহ নেই এই একাদশে।

মেয়েদের বর্ষসেরা তারকা হলেন বার্সেলোনার অ্যালেক্সিয়া পুতেয়াস

এবার নারীদের ব্যালন ডি’অর জিতেছেন আলেক্সিস পুতেয়াস। ফিফা বেস্টের ক্ষেত্রেও তাঁর ব্যতিক্রম হলো না। বার্সেলোনাকে ট্রেবল জেতানোর পুরস্কার পেলেন এই তারকা। পুরস্কার জয়ের পথে হারিয়েছেন সতীর্থ জেনিফার এর্মোসো ও চেলসির স্যাম কের কে। পুরস্কার ঘোষণা করেছেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।

ছেলেদের বর্ষসেরা তারকা হলেন রবার্ট লেভান্ডভস্কি

লিওনেল মেসি আর মোহাম্মদ সালাহকে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড় হলেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেভান্ডভস্কি।

আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোল করার পুরস্কার পেলেন রোনালদো

জাতীয় দলের হয়ে এবার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর শিরোপা নেই, তবে রেকর্ড আছে। ইউরোতে রোনালদো ৫ গোল করেছেন, তবে তাঁর দল বাদ পড়েছে টুর্নামেন্টের শেষ ষোলোতে। ওই পাঁচ গোলে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইরানের আলী দাইয়ির গড়া ১০৯ গোলের রেকর্ড ছুঁয়েছিলেন, এরপর সেপ্টেম্বরে সেটিকে পেরিয়ে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন রোনালদো। পর্তুগালের জার্সিতে তাঁর নামের পাশে এখন জ্বলজ্বল করে ১১৫ গোল!

সে কীর্তির জন্য বিশেষ পুরস্কার পেলেন আজ রোনালদো, ফিফার তরফ থেকে।

ফিফা   ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়   লিওনেল মেসি   রবার্ট লেভান্ডভস্কি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

ইউনাইটেডের জালে হালান্ড-ফোডেনের গোলবন্যা

প্রকাশ: ০১:৩০ পিএম, ০৩ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail ইউনাইটেডের জালে হালান্ড-ফোডেনের গোলবন্যা

টানা চার ম্যাচে জয় পাওয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে কোনো সুযোগই দিল না ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। অষ্টম মিনিটে প্রথম পেরেকটা ঠোকেন ফিল ফোডেন। ৩৪ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করে সফরকারীদের আত্মবিশ্বাস গুঁড়িয়ে দেন আর্লিং হালান্ড। দুই গোলে পিছিয়ে গিয়ে ম্যাচে আর ফিরতে পারেনি টেন হাগের শিষ্যরা। অন্যদিকে সফরকারীদের জালে একের পর এক বল জড়ানোর উল্লাসে মেতেছে পেপ গার্দ্দিওলার শিষ্যরা।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রোববার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ৬-৩ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। উত্তেজনার ম্যানচেস্টার ডার্বিতে হ্যাট্ট্রিক করেছেন সিটির দুই ফরোয়ার্ড আর্লিং হালান্ড আর ফিল ফোডেন। 

ঘরের মাঠে শুরু থেকেই ইউনাইটেডকে চেপে ধরেন সিটি ফরোয়ার্ডরা। বার্নার্ডো সিলভার পাস থেকে স্বাগতিকদের লিড এনে দেন ফিল ফোডেন। এগিয়ে গিয়েও আক্রমণের ধার কমেনি সিটিজেনদের। ৩৪ মিনিটে লিড দ্বিগুণ করেন হালান্ড। সে গোলের রেশ না কাটতেই তিন মিনিট পর আবারও ইউনাইটেডের জালে বল জড়ান নরওয়েজিয়ান ফরোয়ার্ড।

৩ গোলে পিছিয়ে যাওয়ার পর প্রথমার্ধে আক্রমণেই উঠতে পারছিল না ইউনাইটেড। হালান্ড-ফোডেনদের আক্রমণ সামলাতে রক্ষণেই সময় বেশি দিতে হচ্ছিল টেন হাগের শিষ্যদের। তাতেও রক্ষা হয়নি। ৪৪ মিনিটে হালান্ডের পাসে লিডটা ৪-০ তে নিয়ে যান ফোডেন। প্রথমার্ধ শেষ হয় অবিশ্বাস্য এই স্কোরলাইনেই!  

দ্বিতীয়ার্ধে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করে ইউনাইটেড। ৫৬ মিনিটে এরিকসনের অ্যাসিস্টে সিটির জালে বল জড়ান অ্যান্টনি। তাতে খুব বেশি লাভ হয়নি অবশ্য। ৬৪ মিনিটে আবারও গোল করে নিজের হ্যাট্ট্রিক পূরণ করেন হালান্ড। স্কোর হয়ে যায় ৫-১। এই ম্যাচে রেড ডেভিলদের ফেরা কঠিন হয়ে যায় হালান্ডের হ্যাটট্রিকে। 

নিজের হ্যাট্ট্রিকের পর সতীর্থের হ্যাট্ট্রিকেও অবদান রেখেছেন নরওয়েজীয়ান তারকা। ৭২ মিনিটে ফোডেনের তৃতীয় গোলে অ্যাসিস্টাও তারই। হ্যাটট্রিক পূর্ণ করে ফোডেন সিটিকে নিয়ে যান ধরাছোঁয়ার আরও বাইরে। স্কোর হয়ে যায় ৬-১।

৮৪ মিনিট ও অতিরিক্ত সময়ে ইউনাইটেডের হয়ে মার্শাল দুটি গোল শোধ করলেও তাতে শুধু ব্যবধানই কমেছে। ৬-৩ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সিটি।


খেলাধূলা   ফুটবল   প্রিমিয়ার লিগ   ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড   ম্যান সিটি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

পাকিস্তানের কাছে ৯ উইকেটে হারল বাংলাদেশ

প্রকাশ: ১২:০১ পিএম, ০৩ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail পাকিস্তানের কাছে ৯ উইকেটে হারল বাংলাদেশ

দাপুটে জয় দিয়ে নারী এশিয়া কাপ শুরু করা বাংলাদেশ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানের সামনে মুখ থুবড়ে পড়লো। ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে পুরো ২০ ওভার খেলে ৮ উইকেটে মাত্র ৭০ রান তুলেছিল নিগার সুলতানার দল।

পাকিস্তান এই রান পার করতে নিয়েছে মাত্র ১২.২ ওভার। বাংলাদেশের মেয়েরা হেরেছে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে।

ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দুই ওপেনার মুনিবা আলি আর সিদরা আমিনই ৪৯ রান তুলে দেন পাকিস্তানকে। ১৪ রান করা মুনিবাকে উইকেটরক্ষকের ক্যাচ বানিয়ে এই জুটিটি ভাঙেন সালমা খাতুন।

তবে এরপরের পথটুকু পাড়ি দিতে একদমই কষ্ট হয়নি সিদরা আমিন আর অধিনায়ক বিসমাহ মারুফের। সিদরা ৩৫ বলে ৩৬ আর বিসমাহ ২০ বলে ১২ রানে অপরাজিত থাকেন।

সিলেট বিভাগীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজও টসভাগ্য সহায় হয়নি টাইগ্রেসদের। টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তান অধিনায়ক বিসমাহ মারুফ।

ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ওভারেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। ডায়ানা বায়াগের বল ইনসাইডেজ হয়ে বোল্ড হন শামীমা সুলতানা (১)।

পরের ওভারে সাদিয়া ইকবালকে স্লগ সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড ফারজানা হক (১)। এরপর রুমানা আহমেদও এলবিডব্লিউর শিকার মাত্র ১ রানে। দলের বোর্ডে ৩ রান উঠতেই ৩ উইকেট হারিয়ে রীতিমত ধুঁকতে থাকে বাংলাদেশ।

সেখান থেকে ৩৪ বলে ২৪ রানের একটি জুটি গড়েন নিগার সুলতানা জ্যোতি আর লতা মন্ডল। লতা ১২ রান করে নিদা দারের বলে এলবিডব্লিউ হলে ভাঙে এই জুটি। ২৭ রানে ৪ উইকেট হারায় চ্যাম্পিয়নরা।

এরপর সালমা খাতুনকে নিয়ে অধিনায়ক জ্যোতির ২৩ বলে ১৫ রানের আরেকটি ছোট জুটি। জ্যোতিকেও এলবিডব্লিউ করেন নিদা দার। ৩০ বলে অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ১৭ রান।

১৪তম ওভারে মাত্র ৪২ রান তুলে ৫ উইকেট হারানো বাংলাদেশ এরপর আর লড়াকু পুঁজির পেছনে ছুটতে পারেনি। সালমা খাতুন ২৯ বলে অপরাজিত থাকেন ২৪ রানে।


এশিয়া কাপ   নারী এশিয়া কাপ   বাংলাদেশ   পাকিস্তান  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

'গুডবুকে' নাম উঠল বসুন্ধরা কিংসের

প্রকাশ: ১১:০৯ এএম, ০৩ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail 'গুডবুকে' নাম উঠল বসুন্ধরা কিংসের

ফিফার গুডবুকে নাম উঠছে বসুন্ধরা কিংসের। শৃঙ্খলা মেনে চললেই সেই ক্লাবের ঠাই হয় ফিফার এই গুডবুকে। বসুন্ধরা কিংসও পেয়ে গেল সেই আসন।

 সাবিনা খাতুনরা সাফ চ্যাম্পিয়নের পর বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলেন। বাংলাদেশের শিরোপায় সভাপতি হাসি-খুশি থাকবেন এটাই স্বাভাবিক। অথচ সেদিন তার কষ্টের কথাও বলে ফেলেছিলেন। আর তা পেশাদার লিগ খেলা ক্লাবগুলোকে নিয়ে। তিনি বলেন, ‘আমরা চাই নারী লিগ আরও জমজমাট বা আকর্ষণীয় করে তুলতে। কোনোভাবেই পারছি না। ক্লাবগুলোকে রাজি করাতে সাধারণ সম্পাদক শুধু হাত-পা ধরতে বাকি রেখেছেন। তবু ক্লাবগুলো নীরব ভূমিকা পালন করছে। অথচ ফিফা কিংবা এএফসি নিয়ম করে দিয়েছে পেশাদার লিগের ক্লাবগুলোর নারী ও বয়সভিত্তিক দল থাকা বাধ্যতামূলক। সব জেনেও নারী লিগে দল গড়ছে না তারা। এখানে বাফুফের কি করার আছে। নোটিস পাঠাবো তাও পারছি না।’

বাফুফে সভাপতি কতটা যে অসহায় সেদিন তাঁর বক্তব্যে ফুটে উঠেছিল। যাক অন্য ক্লাবগুলো না খেলুক পেশাদার লিগে অভিষেকের পর থেকেই পেশাদারিত্বের সব নিয়মকানুন মেনে চলেছে বসুন্ধরা কিংস। দেশের ফুটবল সংস্থার অভিভাবক সালাউদ্দিন তা স্বীকারও করেছেন। পেশাদার লিগের একমাত্র দল হিসেবে বসুন্ধরা গ্রুপের বসুন্ধরা কিংস নারী লিগে অংশ নিচ্ছে। বয়সভিত্তিক লিগেও অংশ নিচ্ছে। ফিফার সব গাইডলাইন মেনে চলেছে। এমনতো সবারই হওয়া উচিত।

ফিফা বিশ্ব ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা। তারা এতটা ক্ষমতাবান যে শৃঙ্খলা ভাঙলেই শাস্তি। এএফসিও তাদের পথ অনুসরণ করে। ফিফার নজরদারি সব জায়গায়। বিশ্ব ফুটবলে দুর্বল দেশ হলেও বাংলাদেশের কার্যক্রমে তাদের দৃষ্টি রয়েছে। আর প্রফেশনাল লিগে নিয়ম তো তারাই তৈরি করে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের ক্লাবগুলোর কার্যকলাপেও চোখ ফেলে রেখেছে। যারা শৃঙ্খলা মেনে চলে সেসব ক্লাবের জন্য পুরস্কার না থাকলেও ফিফার গুডবুকে নাম লেখা হয়ে যায়। এক সময়ে মোহামেডান ও আবহনীর ওপর সুনজর ছিল ফিফার।

এ প্রসঙ্গে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক কায়সার হামিদ বলেন, ‘দৃশ্য বদলে গেছে। এক সময়ে ফুটবলারদের প্রথম পছন্দ ছিল মোহামেডান বা আবাহনী। এখন বসুন্ধরা কিংস। হবেই না কেন কিংসতো সেভাবেই ক্লাব পরিচালিত করছে। তারাই একমাত্র দল যারা পেশাদারিত্বে প্রতিটি পদক্ষেপ মেনে এগিয়ে চলেছে। সেক্ষেত্রে তাদের নাম ফিফার গুডবুকে থাকবে সেটাইতো স্বাভাবিক।

বসুন্ধরা কিংস   ফিফা   গুডবুক  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

৭০ রানেই থামলো বাংলাদেশ ইনিংস

প্রকাশ: ০৯:৫৬ এএম, ০৩ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail ৪ উকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে বাংলাদেশ

দাপুটে জয় দিয়ে নারী এশিয়া কাপ শুরু করা বাংলাদেশ আজ পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে। শেষ পর্যন্ত পুরো ২০ ওভার খেলে ৮ উইকেটে মাত্র ৭০ রান তুলেছে নিগার সুলতানার দল। অর্থাৎ জিততে হলে পাকিস্তানকে করতে হবে ৭১।

সিলেট বিভাগীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজও টসভাগ্য সহায় হয়নি টাইগ্রেসদের। টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাকিস্তান অধিনায়ক বিসমাহ মারুফ।

ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ওভারেও ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। ডায়ানা বায়াগের বল ইনসাইডেজ হয়ে বোল্ড হন শামীমা সুলতানা (১)।

পরের ওভারে সাদিয়া ইকবালকে স্লগ সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড ফারজানা হক (১)। এরপর রুমানা আহমেদও এলবিডব্লিউর শিকার মাত্র ১ রানে। দলের বোর্ডে ৩ রান উঠতেই ৩ উইকেট হারিয়ে রীতিমত ধুঁকতে থাকে বাংলাদেশ।

সেখান থেকে ৩৪ বলে ২৪ রানের একটি জুটি গড়েন নিগার সুলতানা জ্যোতি আর লতা মন্ডল। লতা ১২ রান করে নিদা দারের বলে এলবিডব্লিউ হলে ভাঙে এই জুটি। ২৭ রানে ৪ উইকেট হারায় চ্যাম্পিয়নরা।

এরপর সালমা খাতুনকে নিয়ে অধিনায়ক জ্যোতির ২৩ বলে ১৫ রানের আরেকটি ছোট জুটি। জ্যোতিকেও এলবিডব্লিউ করেন নিদা দার। ৩০ বলে অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ১৭ রান।

১৪তম ওভারে মাত্র ৪২ রান তুলে ৫ উইকেট হারানো বাংলাদেশ এরপর আর লড়াকু পুঁজির পেছনে ছুটতে পারেনি। সালমা খাতুন ২৯ বলে অপরাজিত থাকেন ২৪ রানে।


ক্রিকেট   এশিয়া কাপ   নারী এশিয়া কাপ   বাংলাদেশ   পাকিস্তান  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

পাকিস্তানের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০৯:৪৩ এএম, ০৩ অক্টোবর, ২০২২


Thumbnail পাকিস্তানের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

দাপুটে জয় দিয়ে নারী এশিয়া কাপ শুরু করা বাংলাদেশের আজ প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। সিলেট বিভাগীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজও টসভাগ্য সহায় হয়নি টাইগ্রেসদের।

টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাকিস্তান অধিনায়ক বিসমাহ মারুফ। অর্থাৎ ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করবে।

এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টির উদ্বোধনী ম্যাচেই থাইল্যান্ডকে ৮২ রানে অলআউট করে ৯ উইকেট আর ৫০ বল হাতে রেখে জিতেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

বাংলাদেশ একাদশ
শামীমা সুলতানা, ফারজানা হক, নিগার সুলতানা (অধিনায়ক), রুমানা আহমেদ, সুভানা মোস্তারি, রিতু মনি, সালমা খাতুন, নাহিদা আক্তার, সোহেলি আক্তার, সানজিদা মেঘলা, লতা মন্ডল।


এশিয়া কাপ   নারী এশিয়া কাপ   বাংলাদেশ   পাকিস্তান   টস  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন